বাংলাদেশ, , বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২

প্রাচীন চট্টগ্রাম ইতিহাস সংরক্ষন দিবসে বক্তারা : মানুষ সচেতন না হলে প্রাচীন ইতিহাস সংরক্ষন অসম্ভব

  প্রকাশ : ২০১৯-০৪-২৯ ১৫:১৫:১৩  

পরিস্হিতি২৪ডটকম : মানুষ সচেতন না হলে প্রাচীন ইতিহাস, প্রত্ন সম্পদ ও ঐতিহ্য সংরক্ষন অসম্ভব।
ইতিহাস সম্পর্কে মানুষ সচেতন হতে হবে। তখনই প্রাচীন প্রত্ন ইতিহাস সংরণের মাধ্যমে আগামী প্রজন্মের কাছে সঠিকভাবে পৌঁছে যাবে। চট্টগ্রামের আড়াই হাজার বছরের প্রাচীন প্রত্নসম্পদ থাকলেও ইতিহাস অসচেতনতার কারণে তা ধ্বংস হতেই চলেছে। অন্যদিকে প্রাচীন প্রত্নসম্পদ ধ্বংস করলেও সময় উপযোগী আইন না থাকায় প্রায় ইতিহাস ধ্বংস করছেন মানুষরূপী দানবরা। আড়াই হাজার বছরের প্রত্নসম্পদ, মগ শাসন আমল, আরাকান, ত্রিপুরা, মুঘল, সুলতানী আমলের অনেক প্রাচীন সম্পদে ভরপুর এই চট্টগ্রাম। চট্টগ্রামের প্রাচীন ইতিহাস সংরক্ষন করে সরকারি উদ্যোগে প্রত্ন আইন প্রয়োগের মাধ্যমে এগুলো রা করা সময়ের দাবী।
২৮ এপ্রিল সন্ধ্যায় প্রাচীন চট্টগ্রাম ইতিহাস সংরক্ষন পরিষদের উদ্যোগে ইতিহাস গবেষক ও বহু গ্রন্থপ্রণেতা সোহেল মুহাম্মদ ফখরুদ-দীনের জন্মদিবসে প্রাচীন চট্টগ্রাম ইতিহাস সংরক্ষন দিবসের আলোচনা ও সংবর্ধনা সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

প্রাচীন চট্টগ্রাম ইতিহাস সংরক্ষন পরিষদের সভাপতি সাংবাদিক এ কে এম আবু ইউসুফের সভাপতিত্বে ও সঞ্চালনায় এই সভায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বীরমুক্তিযোদ্ধা ও সিএমপি’র সাবেক অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, বিশিষ্ট কবি ও অনুবাদক কবি মাহমুদুল হাসান নিজামী, বিশিষ্ট ইতিহাসবিদ সোহেল মুহাম্মদ ফখরুদ-দীন, অধ্যাপক জিতেন্দ্রলাল বড়–য়া, প্রাবন্ধিক সাংবাদিক নুর মোহাম্মদ রানা, ইঞ্জিনিয়ার হোসেন মোহাম্মদ মুরাদ, ডাঃ মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন, মানবাধিকার কর্মী ও আলোকচিত্রী ওচমান জাহাঙ্গীর, ইঞ্জিনিয়ার ফেরদৌস ওয়াহিদ মিন্টু, চৌধুরী মোহাম্মদ শফি, মোহাম্মদ ফারুক, অধ্য মুহাম্মদ ইউনুচ কুতুবী, মোহাম্মদ শফিউল আলম শফি, কবি নাছির বিন ইব্রাহিম, সাংবাদিক তৌহিদুল ইসলাম, মোহাম্মদ সাফাত বিন সানাউল্লাহ, সাংবাদিক সোহেল তাজ, প্রবীন সাংবাদিক অমর কান্তি দত্ত, মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম চৌধুরী, মোহাম্মদ আবদুর রহিম, প্রবীন শিাবিদ নুরুল আলম প্রমূখ। সভায় ইতিহাস গবেষণা ও সংরক্ষনে বিশেষ অবদানের জন্য ইতিহাস গবেষক সোহেল মুহাম্মদ ফখরুদ-দীনকে বিশেষ স্মারক সম্মাননা ও উত্তোরীয় প্রদান করা হয়।



ফেইসবুকে আমরা