বাংলাদেশ, , সোমবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২২

এনজিও বিষয়ক ব্যুরো’র মহাপরিচালক’র ইপসা’র কার্যক্রম পরিদর্শন

  প্রকাশ : ২০২২-০৯-২৯ ২৩:৫৪:০৫  

পরিস্থিতি২৪ডটকম : সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রমের পাশাপাশি বেসরকারি উন্নয়ন সংগঠন (এনজিও)সমূহ সরকারের সহায়কশক্তি হিসেবে বিভিন্ন সমাজ উন্নয়ন ও মানবিক উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। তৃণমূল পর্যায়ে উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়নে এনজিওসমূহ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। বাংলাদেশ ইতিমধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে এবং আমরা উন্নত দেশ গঠনের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। বৈশ্বিক উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা “টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট-এসডিজি ” অর্জনের পাশাপাশি উন্নত দেশ গঠনে এনজিওসমূহ তৃণমূল পর্যায়ে বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে আসছে। সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডের সুফল তৃণমূল পর্যায়ে পৌঁছে দেওয়ার বিষয়ে এনজিওসমূহ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এনজিও বিষয়ক ব্যুরো’র মহাপরিচালক (গ্রেড-১) কে. এম. তারিকুল ইসলাম ইপসা কর্তৃক কক্সবাজার জেলায় বাস্তবায়িত বিভিন্ন প্রকল্পের প্রদানদের সাথে মতবিনিময় সভায় উপরোক্ত মতামত প্রদান করেন। তিনি আরও বলেন, স্বচ্ছতা ও জবাবাদিহীতার মাধ্যমে কার্যক্রমসমূহ বাস্তবায়ন করার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। মতবিনিময় সভার পূর্বে এনজিও বিষয়ক ব্যুরো’র মহাপরিচালক ইন্টারন্যাশনাল রেসকিউ কমিটি (আইআরসি)’র সহযোগিতায় ইপসা’র কর্তৃক বাস্তবায়িত “সাসটেইনবেল এন্ড কমপ্রিহেনসিভ প্রোটেকশন প্রোগ্রাম ফর হোস্ট কমিউনিটিস ইমপ্যাকটেড বাই দ্যা রোহিঙ্গা ক্রাইসিস ইন বাংলাদেশ” প্রকল্পের কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। তিনি আইআরসি’র সহযোগিতায় ইপসা কর্তৃক পরিচালিত নারী ও কিশোরী বান্ধব কেন্দ্র (ডাব্লিউজিএসএস)’র কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত হন।

তিনি নারী ও কিশোরী বান্ধব কেন্দ্র’র কিশোরীদের একটি সেশন পরিদর্শন করেন এবং অংশগ্রহনকারী কিশোরীদেও সাথে আলাপ করেন। তিনি উক্ত প্রকল্পের কিশোরীদের উন্নয়নে পরিচালিত “গার্লস শাইন সেশন” ও “সাসা সেশন” বিষয়ে বিস্তারিত জানার পর এ কার্যক্রমের ভূয়শী প্রশংসা করেন। ইপসা’র যুব উন্নয়নভিত্তিক বিভিন্ন দক্ষতা বৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিদর্শনের পর এনজিও বিষয়ক ব্যুরো’র মহাপরিচালক ইপসা এইচআরডিসি-কক্সবাজার’র কনফারেন্স রুমে আয়োজিত ইপসা’র প্রকল্প প্রধানদের সাথে মতবিনিময় সভায় যোগ দেন এবং হোস্ট কমিউনিটিসহ রোহিঙ্গা রেসপন্স প্রোগ্রামের মানবিক সহায়তা কার্যক্রম ভালোভাবে বাস্তবায়নের জন্য ইপসা’কে ধন্যবাদ জানান। তিনি যুবদের দক্ষতা উন্নয়নসহ কারিগরী দক্ষতা বৃদ্ধিমূলক আরও কার্যক্রম গ্রহনের জন্য ইপসা কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানান ও নির্দেশনা প্রদান করেন। উক্ত মতবিনিময় সভায় ইপসা’র সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম, ইপসা কক্সবাজারের ফোকাল পার্সন মোহাম্মদ হারুন, ইপসা’র উইমেন এন্ড প্রোটেকশন এমপাওয়ারমেন্ট ম্যানেজার জকি দেওয়ানসহ কক্সবাজার জেলায় ইপসা কর্তৃক বাস্তবায়িত বিভিন্ন প্রকল্পের প্রোগ্রাম ম্যানেজার, প্রোগ্রাম কোঅর্ডিটের, প্রজেক্ট কোঅর্ডিনেটরবৃন্দ অংশগ্রহন করেন। এখানে উল্লেখ্য যে, স্থায়ীত্বশীল উন্নয়নের জন্য সংগঠন ইপসা ১৯৮৫ সালে প্রতিষ্ঠার পর বৃহত্তর চট্টগ্রামের বিভিন্ন জেলায় এবং ২০০১ সাল থেকে কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন উপজেলায় সমাজ উন্নয়ন ও মানবিক সাড়াদানমূলক বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে আসছে। বর্তমানে ইপসা কক্সবাজার জেলার ৯টি উপজেলায় এবং জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিক (এফডিএমএন) বা রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী অস্থায়ীভাবে আশ্রয় নেওয়া উখিয়া ও টেকনাফ উপজেলার ৩০ টি ক্যাম্পে বিভিন্ন মানবিক সহায়তা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি



ফেইসবুকে আমরা