বাংলাদেশ, , রোববার, ২৬ জুন ২০২২

সিপাহী বিদ্রোহের মহানয়ক হাবিলদার রজব আলী দিবস স্মরণে বক্তারা : বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনে হাবিলদার রজব আলীর অবদান ইতিহাসে কালজয়ী

  প্রকাশ : ২০১৯-১১-১৪ ১৭:৫২:০৪  

পরিস্হিতি২৪ডটকম : ১৮৫৭ সালে ভারত বর্ষের স্বাধীনতাকামী দেশীয় সিপাহী বিদ্রোহের মহানায়ক হাবিলদার রজব আলী খাঁ এর সেই ১৮৫৭ সালের ১২ নভেম্বর চট্টগ্রামের ৩৪ বেঙ্গল রেজিমেন্ট এর এদেশীয় সৈনিকদের ব্রিটিশ সম্রাজ্যর বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষনা করেন। সেই বিদ্রোহের মহানায়ক হাবিলদার রজব আলী খাঁ। রজব আলী খাঁর নেতৃত্বে চট্টগ্রামের মাটি থেকেই ব্রিটিশ বিরোধী বিদ্রোহের সূচনা হয়। ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে এবং ভারতীয় উপমহাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে চট্টগ্রামের বীর হাবিলদার রজব আলীর অবদান অপরিসীম ও ইতিহাসে কালজয়ী। সেই হাবিলদার রজব আলী দিবসের ১৬২ বছর পূর্তি উপলে ১২ নভেম্বর হাবিলদার রজব আলী দিবস স্মরণে এক আলোচনা সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথাগুলো বলেছেন। চট্টগ্রাম ইতিহাস চর্চা কেন্দ্রের উদ্যোগে ঐদিন সকালে চট্টগ্রাম ইতিহাস চর্চা কেন্দ্রের সভাপতি ইতিহাসবেত্তা সোহেল মো. ফখরুদ-দীন এর সভাপতিত্বে এই সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা রেজাউল করিম তালুকদার। অধ্য মুহাম্মদ ইউনুচ কুতুবীর সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ নুর হোসেন, মোঃ নজরুল ইসলাম চৌধুরী, মোঃ সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, সাংবাদিক একেএম আবু ইউসুফ, মোহাম্মদ দেলওয়ার হোসেন মানিক, রফিকুল ইসলাম তালুকদার, অমূল্য দত্ত, ডাঃ লিটন বড়ুয়া, মোঃ খায়রুল আলম, মোঃ এস.এম ওসমান, মোঃ শহিদুল আলম প্রমূখ। সভায় বক্তারা বলেছেন, হাবিলদার রজব আলী খাঁ চট্টগ্রামের ইতিহাসে কালজয়ী মনিষী ও ভারতীয় মহান স্বাধীনতা আন্দোলনে প্রাতঃ স্মরণীয় যোদ্ধা। ১৮৫৭ সালে ভারত বর্ষে সিপাহী বিদ্রোহে তাঁর অবদান অপরিসীম। ১৭৫৭ সালে পলাশীর প্রান্তরে বাংলার শেষ নবাব সিরাউদৌলার পরাজয় ও হত্যার মধ্যে দিয়ে বাংলার শাসন মতা দখল করে নেয় ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানী। পরবর্তীতে সমগ্র ভারত বর্ষ ইংরেজদের করলঘাত হয়। ভারত বর্ষের অপার সম্পদ লুট করে নিয়ে যায় ইংরেজরা। ১৭৫৭ সালে পলাশীর যুদ্ধে স্বাধীনতা হারানোর মর্ম বেদনা ভূলতে পারেনি স্বাধীনতা কামী ভারত বর্ষ। এর শত বছর পর ১৮৫৭ সালে পরিকল্পিত ভাবে চট্টলবীর সন্তান হাবিলদার রজব আলী ইংরেজদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহের সূচনা করেন। ১৮৫৭ সালের ১২ নভেম্বর হাবিলদার রজব আলী চট্টগ্রামের ৩৪নং দেশীয় পদাতিক বাহিনীর ২, ৩ ও ৪ নং কোম্পানীর চার শতাধিক সিপাহী সহ ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে মহা সংগ্রামে স্বাধীনতার জন্য জড়িয়ে পড়েন। ঐ সময় আতঙ্কিত ব্রিটিশ সৈন্যরা সমুদ্রে জাহাজে আশ্রয় নেন। তখন চট্টগ্রাম প্রায় ত্রিশ ঘন্টা ব্রিটিশ শাসন মুক্ত ছিল। বক্তারা ১৮৫৭ সালের ১২ নভেম্বরের ঐতিহাসিক হাবিলদার রজব আলী ও তাঁর সিপাহী বিদ্রোহের ইতিহাস জাতীয় পাঠ্য পুস্তকে অন্তরভুক্তির দাবী জানান।
প্রেস বিজ্ঞপ্তি



ফেইসবুকে আমরা