বাংলাদেশ, , বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২

মাইজভাণ্ডারী একাডেমীর আয়োজনে আন্তঃধর্মীয় সম্প্রীতি সম্মেলন

  প্রকাশ : ২০১৯-০১-১৬ ২০:১৫:৩৩  

পরিস্হিতি২৪ডটকম : উপমহাদেশের প্রখ্যাত অধ্যাত্ম সাধক ও বাংলাদেশে প্রবর্তিত একমাত্র ত্বরিকা, ‘ত্বরিকা-ই-মাইজভাণ্ডারীয়ার’ প্রবর্তক গাউসুল আযম হযরত মাওলানা শাহ্ সুফি সৈয়দ আহমদ উল্লাহ্ মাইজভাণ্ডারী (কঃ)-এর ১১৩তম উরস শরিফ উপলক্ষে ‘শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী (কঃ) ট্রাস্ট’র ব্যবস্থাপনায় ১০ দিনব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে মাইজভাণ্ডারী একাডেমি আয়োজিত আজ ১৫ জানুয়ারি মঙ্গলবার বিকেল ৪.৩০ ঘটিকায় চট্টগ্রাম বঙ্গবন্ধু হল মিলনায়তনে প্রেস ক্লাবে আন্তঃধর্মীয় সম্প্রীতি সম্মেলন- ২০১৯ বিষয়: “ধর্মীয় সম্প্রীতির আলোকে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠা”। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি ড. মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন। শাহানশাহ সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী ট্রাষ্টের ম্যানেজিং ট্রাষ্টি আলহাজ্ব সৈয়দ মোহাম্মদ হাসান মাইজভাণ্ডারীর লিখিত বাণীটি পাঠ করেন ট্রাস্টের সচিব এ এন এম মোমিন, আমরা বিভিন্ন ধর্ম-সংস্কৃতিতে বিশ্বাসী মানুষরাই পৃথিবীর বাসিন্দা। পৃথিবীতে আমাদেরকে শান্তিপূর্ণভাবে বাস করতে হলে সম্প্রীতির ভিত্তিতে সামাজিক সহাবস্থান নীতিতে মেনে নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। আমাদের অনুশীলন করতে হবে ‘বহুত্ববাদী’ সমাজের বৈশিষ্ট্য। যেখানে বৈশিষ্ট হবে প্রেমপ্রীতি-ভালবাসা এবং পারস্পরিক নৈকট্য। এটি কখনো লোভ-লালসা-হিংসা-বিদ্বেষ এবং স্বার্থন্ধতার মাধ্যমে অর্জন করা যায় না। আত্মার পরিশুদ্ধিতার মাধ্যমে এটি অর্জন করতে হয়। আলোচকবৃন্দের আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় দূতাবাস চট্টগ্রামের সহকারী হাইকমিশনার শ্রী অনিন্দ্য ব্যানার্জি, চট্টগ্রাম ইন্ডিপেনডেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পালি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. জ্ঞানরতœ মহাথেরো, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন আর্চডায়োসিসের আর্চবিশপ মডেস এম কস্তা সিএসসি। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ জাফর উল্লাহ। পবিত্র কোরআন হতে তেলাওয়াত করেন মাওলানা মোহাম্মদ মুজিবুল হক, গীতাপাঠ করেন লায়ন ডা. বরুণ কুমার আচার্য বলাই, ত্রিপিটক পাঠ করেন বীরু বংশা ভিুক্ষু, বাইবেল পাঠ করেন রুবি পিনারো। এতে আরো বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মীর মোঃ তরিকুল আলম, অধ্যাপক স্বদেশ চক্রবর্তী। আরো উপস্থিত ছিলেন মাইজভাণ্ডারী গবেষক ড. সেলিম জাহাঙ্গীর, মাইজভাণ্ডারী গাউসিয়া হক কমিটি বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় পর্ষদের সহ-সভাপতি অধ্যাপক এ ওয়াই এম জাফর, মাইজভাণ্ডারী গাউসিয়া হক কমিটি বাংলাদেশ মহানগর শাখার সভাপতি মাকসুদুর রহমান হাসনু, আশরাফুজ্জামান আশরাফ, বীরমুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী, শাহনেওয়াজ চৌধুরী, শেখ মাকসুদুর রহমান দুলাল, আবদুল্লাহ মুহাম্মদ ইকবাল প্রমূখ। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন জামাল নজরুল ইসলাম গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রফেসর ড. অঞ্জন চৌধুরী। উক্ত অনুষ্ঠানে দর্শকদের মধ্যে থেকে প্রশ্নোত্তর ও মুক্ত আলোচনা করা হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি



ফেইসবুকে আমরা