বাংলাদেশ, , সোমবার, ২০ মে ২০২৪

পাকিস্তান ক্রিকেট দল নিউজিল্যান্ডে সেনা প্রহরায়

  প্রকাশ : ২০২০-১১-২৫ ২০:০৯:১৮  

পরিস্হিতি২৪ডটকম : সেই ক্রাইস্টচার্চে এখন অবস্থান করছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। যে ক্রাইস্টচার্চে ২০১৯ সালের একেবারে শুরুতে এক জঙ্গির নির্বিচার গুলিতে প্রাণ হারিয়েছিলেন ৫০ জনেরও বেশি ধর্মপ্রাণ মুসলিম। সেই হামলা থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা।

স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি এবং টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে সেই ক্রাইস্টচার্চেই বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শুরু করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। তবে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের কোয়ারেন্টাইন যথাযথভাবে পালন নিশ্চিত করার জন্য সেনা প্রহরা বসিয়েছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড।

ক্রিকেট পাকিস্তানডটকম জানিয়েছে, তারা যে তথ্য পেয়েছে তাতে জানা যাচ্ছে, পাকিস্তান ক্রিকেট দলকে পুরোপুরি সেনা তদারকির মধ্যেই রাখা হয়েছে। ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনের পুরোটা সময় পাকিস্তান ক্রিকেট দল পুরোপুরি সেনা তত্ত্বাবধানেই থাকবে। মূলতঃ সঠিকভাবে কোয়ারেন্টাইন পালন, স্থানীয়ভাবে গ্রহণকরা কোভিড-১৯ এর জন্য যত নিয়ম-নীতি রয়েছে- সবগুলো সুন্দরভাবে যাতে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা পালন রকতে পারে, সে জন্যই এই সেনা তত্বাবধানের ব্যবস্থা করা হয়।

পাকিস্তানে ক্রিকেট দল লাহোর থেকে প্রথমে দুবাই। এরপর সেখান থেকে সোজা গিয়ে পৌঁছায় নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ডে। এরপর অকল্যান্ড থেকে তাদেরকে পাঠানো হয় ক্রাইস্টচার্চে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন পালন করার জন্য।

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের প্রতিটি সদস্য যেন কোভিড-১৯ প্রতিরোধে গৃহীত স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি) পালন করে (যেমন মাস্ক পরিধান), সেটা নিশ্চিত করার জন্য দুবাই থেকেই নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড একজন মেডিক্যাল বিশেষজ্ঞ নিয়োগ করেছে।

অকল্যান্ডে পৌঁছার পর পাকিস্তান ক্রিকেট দল যখন ক্রাইস্টচার্চের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করবে, তার আগে স্থানীয় স্বাস্থ্য কর্মকর্তা পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের তাদের দেশের কোভিড-১৯ প্রতিরোধে গৃহীত প্রটোকল সম্পর্কে বিস্তারিত অবহিত করে। সেখানে রয়েছে, কিভাবে সামাজিক দুরত্ব পালন করতে হবে, কিভাবে মাস্ক পরে থাকতে হবে এবং সঙ্গে অন্যসব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো অবহিত করা হয়।

ক্রাইস্টচার্চে পুরো পাকিস্তান দল প্রথমে তিনদিন আইসোলেশনে থাকবে। এর মধ্যে কোভিড-১৯ পরীক্ষায় পজিটিভ প্রমাণিত হলে তাকে দল থেকে আলাদা করে ফেলা হবে। কোয়ারেন্টাইনের বাকি সময়টাতে পাকিস্তানের দলের সদস্যদের বিভিন্ন গ্রুপে ভাগ করে ফেলা হবে। প্রতিটি গ্রুপ তাদের জন্য নির্ধারিত এরিয়ায় থাকবে। এই সময়ে কোনোভাবেই এক গ্রুপের ক্রিকেটাররা অন্য গ্রুপের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবে না।

প্রথম তিনদিন খেলোয়াড়রা তাদের হোটেল রুমের বেলকনিতে এক্সারসাইজ করতে পারবে। পুরো দল ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে কানেক্টেড থাকবে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ কিংবা জুম ভিডিও কলের মাধ্যমে।

তিনদিরে আইসোলেশন শেষে খেলোয়াড়রা অনুশীলন করতে পারবে। তবে সেটা হতে হবে নিধারিত গ্রুপে গ্রুপে এবং তাদের জন্য নির্ধারিত জায়গায়। লিঙ্কন ইউনিভার্সিটির নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট হাই পারফরম্যান্স সেন্টারের মাঠেই অনুশীলন করবে পাকিস্তান ক্রিকেট দল।

তাদেরকে ভাগ করা হয়েছে মোট চারটি গ্রুপে। পিকে-১, পিকে-২, পিকে-৩, পিকে-৪- এই চার গ্রুপে ভাগ হয়ে কোয়ারেন্টাইন পালন করবে পাকিস্তান ক্রিকেটাররা। অনুশীলনও করবে একসঙ্গে।

নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে পাকিস্তানের তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হওয়ার কথা ১৮ ডিসেম্বর। বাকি দুই ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ২০ এবং ২২ ডিসেম্বর। এরপর খেলবে দুই ম্যাচের টেস্ট। যে দুই ম্যাচ আবার আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অন্তর্ভূক্ত। শুরু হবে ২৬ ডিসেম্বর থেকে।



ফেইসবুকে আমরা