বাংলাদেশ, , সোমবার, ২০ মে ২০২৪

নতুন কারিকুলামে নগরের ১০ সরকারি বিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন

  প্রকাশ : ২০২৩-১০-২৫ ২২:৩২:৪৪  

পরিস্থিতি২৪ডটকম : নতুন কারিকুলামে নগরের ১০টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন শুরু হয়েছে। এবারও পরীক্ষা নয়, লটারির মাধ্যমেই ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে।
মঙ্গলবার (২৩ অক্টোবর) সকাল ১১টা থেকে এ আবেদন শুরু হয়। ১৪ নভেম্বর বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদন গ্রহণ করা হবে।

আবেদন ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ১১০ টাকা, যা শুধুমাত্র টেলিটক প্রি-পেইড মোবাইল থেকে এসএমএস এর মাধ্যমে প্রদান করা যাবে। শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা অনলাইনের (https://gsa.teletalk.com.bd) এই ঠিকানায় গিয়ে আবেদন করতে পারবেন।
জানা গেছে, নগরের ১০টি সরকারি বিদ্যালয়ের পঞ্চম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত ২ হাজার ৪২৪টি শূন্য আসনের বিপরীতে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আবেদন গ্রহণ করা হবে। এরমধ্যে শুধুমাত্র পঞ্চম শ্রেণিতেই শূন্য আসন রয়েছে এক হাজার ৫৪৫টি। এছাড়া ষষ্ঠ শ্রেণিতে ৫০০, ৭ম শ্রেণিতে ১০, অষ্টম শ্রেণিতে ১০ এবং নবম শ্রেণিতে ৩৫৯টি শূন্য আসনের বিপরীতে শিক্ষার্থীদের ভর্তি করা হবে।

চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুলে পঞ্চম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় ১১৪ ও দিবা শাখায় ১২০টি আসন, ষষ্ঠ শ্রেণির দিবা শাখায় ২০, সপ্তম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় ১০ ও অষ্টম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় ১০টি আসন রয়েছে। ডা. খাস্তগীর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় ১১৬টি ও দিবা শাখায় ১১৯টি এবং নবম শ্রেণির প্রভাতী ও দিবা শাখায় ৬০ করে মোট ১২০টি আসন রয়েছে। সরকারি মুসলিম হাইস্কুলের পঞ্চম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় ৫৯টি ও দিবা শাখায় ৬০টি, ষষ্ঠ শ্রেণির প্রভাতী ও দিবা শাখায় ৬০টি করে মোট ১২০টি এবং নবম শ্রেণির প্রভাতী ও দিবা শাখায় ৬০টি করে মোট ১২০টি আসনের বিপরীতে আবেদন গ্রহণ করা হবে। নাসিরাবাদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় ৫৬টি, দিবা শাখায় ৫৮টি এবং ষষ্ঠ শ্রেণির প্রভাতী ও দিবা শাখায় ৬০টি করে মোট ১২০টি আসন রয়েছে। চট্টগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় ১২০টি এবং দিবা শাখায় ১১৯টি আসন রয়েছে। চট্টগ্রাম সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় ৫৯ ও দিবা শাখায় ৬০টি এবং ষষ্ঠ শ্রেণির প্রভাতী ও দিবা শাখায় ৬০টি করে মোট ১২০টি শূন্য আসন রয়েছে।

বাকলিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় (বালিকা) ৫৮টি, দিবা শাখায় (বালিকা) ৬০টি, ষষ্ঠ শ্রেণির প্রভাতী শাখায় (বালিকা) ৬০ ও দিবা শাখায় (বালক) ৬০টি, নবম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় (বালিকা) ৬০টি এবং দিবা শাখায় (বালক) ৫৯টি শূন্য আসন রয়েছে। সিটি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় ১১৮ এবং দিবা শাখায় ১২০টি আসন রয়েছে। হাজী মুহাম্মদ মহসিন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির প্রভাতী শাখায় ৫৯ এবং দিবা শাখায় ৬০টি শূন্য আসনের বিপরীতে আবেদন গ্রহণ করা হবে। এছাড়া, চট্টগ্রাম সরকারি মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের পঞ্চম শ্রেণিতে শুধুমাত্র ১০টি শূন্য আসনের বিপরীতে আবেদন গ্রহণ করা হবে।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ সাদি উর রহিম জাদিদ বলেন, চট্টগ্রামের ১০টি সরকারি বিদ্যালয়সহ দেশের সব বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তির যে নির্দেশনা জারি করা হয়েছে তাতে প্রতি শাখাতে ৬০ জন করে উল্লেখ করা হয়েছে। আমরা সেভাবে আবেদন গ্রহণ করবো এবং পরবর্তী পদক্ষেপ নেব। যেসব স্কুল লটারিতে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে তাদের লটারি হবে। কিন্তু সব স্কুল লটারি প্রক্রিয়ায় অন্তর্ভুক্ত হয়নি। তারা তাদের মতো করে ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে।

সুত্র : বাংলানিউজ২৪ডটকম।



ফেইসবুকে আমরা