বাংলাদেশ, , শনিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০১৯

হাজী মুহাম্মদ মহসিনের অবদানে আজও হাজার হাজার শিক্ষার্থী আলোকিত পথে জীবন গড়ছে : ২৮৭তম জন্মবার্ষিকীতে বক্তারা

  প্রকাশ : ২০১৯-০১-০৬ ১৮:৪৯:২৪  

পরিস্হিতি২৪ডটকম : বাংলার একজন জনহিতৈষী দানবীর, দানশীলতার জন্য যিনি দানবীর খেতাবে ভূষিত হয়েছেন, কালজয়ী শিক্ষানুরাগী হাজী মুহাম্মদ মহসিনের ২৮৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে চট্টগ্রাম নগরীর চট্টগ্রাম নটরডেম স্কুল এন্ড কলেজের হাজী আবুল খায়ের মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা গত ৫ জানুয়ারি শনিবার সকালে বিশিষ্ট প্রাবন্ধিক ও সাংবাদিক এ কে এম আবু ইউসুফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট শিানুরাগী, সমাজসেবী চট্টগ্রাম নটরডেম স্কুল এন্ড কলেজের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মুহাম্মদ হোসেন মুরাদ। উদ্ভোধন করেন বিজয়৭১ এর সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন। সভায় হাজী মুহাম্মদ মহসিনের জীবনীর উপর একটি প্রবন্ধ পাঠ করেন ইতিহাস গবেষক সোহেল মুহাম্মদ ফখরুদ-দীন। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন নটরডেম কলেজের উপাধ্যক্ষ আবুল কাশেম, শিক্ষক নুরুল ইসলাম, অধ্যাপক দিদারুল আলম, অধ্যাপক জামাল উদ্দিন, সৈয়দ শিবলী ছাদেক কফিল, সাংবাদিক অনুতোষ দত্ত বাবু, মাওলানা আনোয়ার হোসেন, অধ্যাপক এএসএম শাহনেওয়াজ আলী মির্জা, ডাঃ বিমল তালুকদার, শিানুরাগী জয়ন্ত লাল চাকমা, শ্রী অরুণ চন্দ্র, বিষু দাশ, মনিকা বড়ুয়া, কনিকা বড়ুয়া প্রমূখ। সভার শুরুতে দানবীর হাজী মুহাম্মদ মহসিনের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন। সভায় বক্তারা বলেছেন, দানবীর হাজী মুহাম্মদ মহসিন শিক্ষা ও সমাজসেবার ইতিহাসে একটি কালজয়ী নাম। তিনি শিক্ষার উন্নয়নে যে ভূমিকা রেখেছেন জাতি তা কখনও ভূলতে পারবেন না। তাঁর দেয়া শিক্ষা বৃত্তির মাধ্যমে হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রী আজও এই বৃত্তির অর্থ দিয়ে শিক্ষা সম্পন্ন করে আলোকিত জীবনের অধিকারী হয়। বাংলাদেশ-ভারত সহ পৃথিবীর বহু জায়গায় হাজী মুহাম্মদ মহসিনের নামে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। বাংলাদেশে ও তাঁর নামে একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মহসিন হল, চট্টগ্রাম হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ, হাজী মুহাম্মদ মহসিন সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, মহসিনা মাদরাসা তাঁরই দানের ফসল। সভায় বক্তারা আরো বলেছেন দানবীর হাজী মুহাম্মদ মহসিনের স্মৃতি ও মহসিনের অবদান গুলো বর্তমান প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে পারলে জাতি হিসেবে আমরা আরো সমৃদ্ধ হবো। হাজী মুহাম্মদ মহসিনের সমাজকর্ম ও শিক্ষাবিস্তারের পাশাপাশি পবিত্র আল কোরআন শরীফ হাতে লিখে প্রচার ও সংরন করতেন।
প্রেস বিজ্ঞপ্তি



ফেইসবুকে আমরা