বাংলাদেশ, , বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯

স্বঘোষিত ভগবান বিষ্ণু ৫০০ কোটি রুপির মালিক!

  প্রকাশ : ২০১৯-১০-১৯ ১৯:৩৬:২২  

পরিস্হিতি২৪ডটকম : নিজেকে তিনি দাবি করেন ভগবান বিষ্ণুর দশম অবতার বলে। ভারতের বেঙ্গালুরুর এই স্বঘোষিত ভগবানের নামডাক সেখানে কালকি ভগবান(আগামীর ভগবান) নামে। শুক্রবার এই প্রভাবশালী ধর্মীয় গুরুর একাধিক ডেরা ও বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়েছে ভারতীয় আয়কর বিভাগ। এ অভিযানে নগদ অর্থ, স্বর্ণ, হীরা ও অন্যান্য সম্পত্তি মিলিয়ে ৫০০ কোটিরও বেশি রুপি মূল্যের অবৈধ সম্পত্তি জব্দ করেছে প্রশাসনিক কর্মকর্তারা।
ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর দাবি, এ অভিযানে গোপন চেকই জব্দ করা হয়েছে ৪০৯ কোটি রুপির। এছাড়া স্বর্ণ ও হীরা মিলিয়ে এ অর্থের পরিমাণ ৫০০ কোটিরও বেশি। ভগবান কালকির কাছে আরও কয়েকশ কোটি মূল্যের গোপন সম্পত্তি রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কেবল ভারতেই নয়, কেনিয়ার বিভিন্ন শহরেও এই ধর্মগুরুর অনেক জমিজমার দলিল-দস্তাবেজ পাওয়া গেছে।

ভারতের দক্ষিণাঞ্চলের বেশকিছু রাজ্যে তুমুল জনপ্রিয় ধর্মগুরু কালকি ভগবান। ভক্তদের মধ্যে তিনি নিজেকে বিষ্ণুর অবতার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। এখন পর্যন্ত তার ৪০টি ডেরা ও আশ্রমের সন্ধান পাওয়া গেছে। এর মধ্যে শুধু চেন্নাইয়েই রয়েছে জাঁকজমকপূর্ণ ২০টি ধর্মীয় স্থান। এর অনেকগুলোই পরিচালনা করেন তার ছেলে কৃষ্ণ। এসব আশ্রমে বিষ্ণুর পূজা ছাড়াও পূজারী ও ভক্তদের জীবনতত্ত্ব, দর্শনশাস্ত্র, যোগব্যায়ামসহ নানা আধ্যাত্মিক বিষয়ে শিক্ষা দেওয়া হয়।
আয়কর বিভাগের একজন মুখপাত্র জানান, তামিলনাড়ু থেকেই প্রায় ৯৩ কোটি রুপি, কয়েকটি মূল্যবান হীরা ও বিপুল পরিমাণ স্বর্ণালঙ্কার জব্দ করা হয়েছে। তদন্তে বিভিন্ন আশ্রমের নামে অসংখ্য ব্যাংক চেকের সন্ধান পাওয়া গেছে। এসব চেকের বেশিরভাগই আশ্রমের আড়ালে তার বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান থেকে ইস্যু করা।

৭০ বছর বয়সী কালকি ভগবানের প্রকৃত নাম বিজয়কুমার নাইড়ু। সরকারি কেরানি হিসেবে কর্মজীবন শুরু করা নাইড়ুই কালে কালে হয়ে ওঠেন কালকি ভগবান। এর আগেও তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযান পরিচালনা করা হয়। ২০১০ সালে জমি দখল, লোক ঠকানো ও নারী নির্যাতনের মামলায় তাকে গ্রেফতারও করা হয়। কিন্তু সে সময় সুনির্দিষ্ট প্রমাণের অভাব ও ভক্তদের চাপের মুখে তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয় সরকার। অবশেষে বুধবার থেকে শুরু করে শুক্রবার পর্যন্ত দেশটির তামিলনাড়ু, তেলেঙ্গানা ও অন্ধ্রপ্রদেশের বিভিন্ন শহরে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অর্থ ও সম্পত্তি উদ্ধার করেছে ভারতীয় আয়কর বিভাগ। অভিযান এখনও অব্যাহত আছে বলে জানানো হয়েছে বিভাগের পক্ষ থেকে।



ফেইসবুকে আমরা