বাংলাদেশ, , শনিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষে বাঙালী জাতির সাথে বিশ্ববাসী আনন্দিত হলেও বিএনপি-জামায়াত নীরব, এটি জাতিকে হতাশ করেছে : এডভোকেট কামরুন নাহার বেগম

  প্রকাশ : ২০২০-০২-০৮ ১৩:১৬:০৬  

পরিস্হিতি২৪ডটকম : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ বাঙালী জাতির জন্য একটি গৌরবময় অধ্যায়। বিশ্ববাসী ও বাঙালী জাতি বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষে আনন্দে আত্মহারা। যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ পালনের জন্য বাঙালী জাতি ও বিশ্ববাসী অধীর আগ্রহে প্রস্তুত। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষে বাঙালী জাতির সাথে বিশ্ববাসী আনন্দিত হলেও বিএনপি-জামায়াত নীরব, এটি জাতিকে হতাশ করেছে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে বর্ষব্যাপী সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক এডভোকেট কামরুন নাহার বেগম উপরোক্ত মন্তব্য করেন।
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে ডিজিটাল বাংলাদেশ পাবলিসিটি কাউন্সিল ও বঙ্গবন্ধু শিশু উৎসব উদযাপন পরিষদ চট্টগ্রাম এর যৌথ উদ্যোগে বছরব্যাপী সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার উদ্বোধন গতকাল ৭ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বিকেল ৫ টায় নগরীর মোমিন রোডস্থ সুপ্রভাত স্টুডিও হলে অনুষ্ঠিত হয়।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশ মানবাধিকার এসোসিয়েশন এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক এডভোকেট কামরুন নাহার বেগম। উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের পরিচালক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ও আর্মি স্টাফ কলেজের অধ্যাপক বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. আহসানুল আলম পারভেজ। প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ মাহমুদুল হক।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক এডভোকেট কামরুন নাহার বেগম বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে, বাংলাদেশের জন্ম হত না। এই বিশ্বাস সমগ্র বাঙালী জাতি ও বিশ্ববাসী বিশ্বাস করলেও বিএনপি-জামায়াত তা স্বীকার করতে চায় না। তারা স্বাধীনতাকেও অস্বীকার করে। বঙ্গবন্ধুকেও অস্বীকার করে। বাংলাদেশের মাটিতে তাদের থাকার কোন অধিকার নেই।
উদ্বোধকের বক্তব্যে ড.আহসানুল আলম পারভেজ বলেন, বাঙালী জাতির জন্য বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ একটি ঐতিহাসিক মুহুর্ত। এই মুহুর্তকে ঘিরে সমগ্র বাঙালী জাতি আজ একাকার। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষকে ঘিরে নীরবতা পালনের মধ্যদিয়ে আবার স্বীকার করেছে বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতাকে তারা বিশ্বাস করে না।
সংগঠনের সিনিয়র সহসভাপতি ও বিশিষ্ট সংগঠক মোঃ জসিম উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি চট্টগ্রাম বিভাগীয় শাখার সভাপতি মোঃ হাসান মুরাদ, জনকল্যান সংস্থার চেয়ারম্যান ডাঃ এম.এ জলিল, বাংলাদেশ পরিবেশ উন্নয়ন সোসাইটির চেয়ারম্যান এ কে এম আবু ইউসুফ, বৃহত্তর চট্টগ্রাম ডেন্টাল এসোসিয়েশনের সভাপতি ডাঃ মোঃ জামাল উদ্দিন, চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সদস্য ও কদমতলী কল্লোল সংঘের ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান লায়ন এম.এ নেওয়াজ।
সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাংলাদেশ আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগ চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সাধারণ সম্পাদক সুরেশ দাশের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা এবং ডিজিটাল বাংলাদেশের একমাত্র প্রচারক স.ম.জিয়াউর রহমান, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক ও খুলশী থানা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ইনচার্জ এস.এম. লেয়াকত হোসেন, সদস্য কবি স্বপন বড়ুয়া, কবি জান্নাতুল ফেরদৌস সোনিয়া, হানিফ চৌধুরী, মোহাম্মদ হোসেন, সংগঠক প্রণব রাজ বড়ুয়া, কবি আসিফ ইকবাল, সমীরন পাল, অভিনেত্রী লিজা আকতার রুমী, শিল্পী অন্তর দাশ, পূজা দাশ, অয়ন বড়ুয়া, প্রিয়ম বড়ুয়া প্রমূখ।
আলোচনা সভা শেষে প্রধান অতিথি অধ্যাপক এডভোকেট কামরুন নাহার বেগম অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী নৃত্যশিল্পীদের মাঝে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন।
প্রেস বিজ্ঞপ্তি



ফেইসবুকে আমরা