বাংলাদেশ, , সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

নারীর ক্ষমতায়ন ও দক্ষতার উন্নয়ন দেশের অগ্রগতির অন্যতম নিয়ামক : রেজাউল করিম চৌধুরী

  প্রকাশ : ২০২০-০৯-০৬ ১০:৩৫:১৮  

পরিস্হিতি২৪ডটকম : দেশের চলমান উন্নয়ন কর্মকান্ডে গতিশীলতায় নারীর ক্ষমতায়ন ও দক্ষতা উন্নয়ন অন্যতম নিয়ামক হিসেবে কাজ করছে বলে উল্লেখ করেছেন চসিক মেয়র পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা এম. রেজাউল করিম চৌধুরী।৪০ নং উত্তর পতেঙ্গা ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ গোড়া থেকেই নারী ক্ষমতায়ন ও নারী পুরুষের সমতায় বিশ্বাসী। ৫২’র ভাষা আন্দোলনে অংশ গ্রহনকারী ছাত্রী-শিক্ষয়ত্রীরা পরবর্তীতে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। ৫৪ র নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে ৯ জন নেতৃত্ব অংশ নিয়ে বিজয়ী হয়েছিলেন। ৬৬ র ছয়দফা আন্দোলনের কারণে বঙ্গবন্ধুসহ অধিকাংশ নেতা কারাগারে থাকাবস্থায় নারী নেতৃত্ব আওয়ামী লীগ ও আন্দোলনকে সংগঠিত রাখতে কাজ করেছিলেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে নারীদের সরাসরি অংশগ্রহন অবিস্মরণীয়।

বলাই বাহুল্য মা বোনেদের মহান আত্মত্যাগ না থাকলে মুক্তিযুদ্ধের বিজয় হয়তো আরো বিলম্বিত হত। জননেত্রী শেখ হাসিনা নারীর ক্ষমতায়ন ও দক্ষতার উন্নয়নের মধ্য দিয়ে দেশের অগ্রগতিতে অভাবনীয় গতিশীলতা প্রদান করেছেন। নারীর পুরুষের সমতা বিধানে সাংবিধানিক লক্ষ্য পূরনে মহিলা লীগকে অগ্রণী ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে হবে।

৪০নং ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফরোজা খানমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী হাসিনা মহিউদ্দিন, বিশেষ অতিথি ছিলেন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নীলু নাগ।

সভায় রেজাউল করিম চৌধুরী আরো বলেন, ১৯৬৯-এর গণ-অভ্যুত্থানের ফলে বঙ্গবন্ধু বীরের বেশে মুক্তির দিশারি রূপে মুক্ত হলে শুধু আওয়ামী লীগ নয়, সমগ্র পূর্ব পাকিস্তান যেন প্রাণ ফিরে পায়। বঙ্গবন্ধুর মনের গভীরে সুখী সমৃদ্ধশালী সোনার বাংলার চিত্র ছিল আঁকা, তাতে তিনি যুক্ত করেছিলেন প্রগতিশীল চিন্তার বিশিষ্ট নারীদের।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট সপরিবারে নির্মমভাবে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর দেশের ওপর নেমে আসে দুর্দিন। আড়াই মাস পর নভেম্বরের ৩ তারিখে হত্যা করা হয় জেলে বন্দী জাতীয় চার নেতা বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহকর্মী সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দীন আহমদ, এম মনসুর আলী এবং এএইচএম কামারুজ্জামানকে।

সাধারণ সম্পাদক নাহিদা বেগমের সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের আহবায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসাইন, সাবেক মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ফরিদ নেওয়াজ, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মো. আলী, যুগ্ম সম্পাদক শামসুদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আকবর, ফরিদুল আলম, ইউনিট আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর আলম, ৩৯নং মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শারমিন, ৪১ নং মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মেহেরুন্নেসা, সাবেক মহানগর ছাত্রনেতা সাবের আহমেদ, ৪০ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সালাউদ্দিন, পতেঙ্গা থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহরাজ তৌসিফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল হাসান সাব্বিরসহ যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।
প্রেস বিজ্ঞপ্তি



ফেইসবুকে আমরা