বাংলাদেশ, , বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯

চন্দনাইশের কানাইমাদারীতে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি : দুর্গত এলাকা ঘোষণার দাবি

  প্রকাশ : ২০১৯-০৭-১১ ২১:২৪:৩০  

পরিস্হিতি২৪ডটকম : বৈরি আবহাওয়া,আষাঢ়ের শেষের দিকের কয়েকদিনের টানাবৃষ্টি, উজান থেকে নেমে আসা শঙ্খ ও চাঁনখালী নদীর পানি বেড়ে ভয়াবহ রূপ ধারণ করে। পাহাড়ি ঢলের পানি ও জোয়ারের পানি মিশে চন্দনাইশ থানাধীন ৪নং বরকল ইউনিয়নের কানাইমাদারী গ্রাম বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়ে গেছে। এলাকার যোাগযোগের সকল রাস্তাঘাট তলিয়ে গেছে ও পানিবন্দি হয়ে পড়েছে কানাইমাদারী এলাকাসহ আশেপাশের আরো ২০টি গ্রাম, হাজার হাজার নরনারী ও গৃহপালিত পশু। ইতিমধ্যে ৩০টি অধিক কাঁচা ঘরবাড়ি পানিতে ধ্বংস হয়ে গেছে।

বৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় তলিয়ে গেছে ধানের বীজতলা, সবজির ক্ষেত। পানিতে ভেসে গেছে চাষকৃত মাছের পুকুর। দোকানপাটে পানি ঢুকে নষ্ট হয়েছে লক্ষ লক্ষ টাকার দোকানের মালামাল। এলাকার প্রায় রাস্তা কাঁচা হওয়ায় জনসাধারণের চলাচলে মারাত্মক বেগ পেতে হচ্ছে। এলাকার স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বাদশাহ মিঞা বলেন, কয়েকদিনের টানা বর্ষণে এলাকার সকল রাস্তাঘাট তলিয়ে গেছে। মানুষের কষ্টের সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে।

স্থানীয় ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার আবদুল মুবিন জানান, পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে মানুষ গৃহবন্দি হয়ে পড়েছে। ক্ষেত-খামার নষ্ট হয়ে গেছে। মানুষ অসহায় অবস্থায় আছে। এই মুহূর্তে এলাকায় পর্যাপ্ত ত্রাণের প্রয়োজন। কানাইমাদারী উন্নয়ন ফোরামের পক্ষ থেকে ফোরামের সভাপতি আলাউদ্দিন চৌধুরী মোর্শেদ ও সাধারণ সম্পাদক পরিবেশবিদ এ কে এম আবু ইউসুফ বন্যা পরিস্থিতির অবনতিতে ক্ষতিগ্রস্ত কানাইমাদারী এলাকাকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা ও সরকারি ত্রাণের সহযোগিতা চেয়ে এলাকার সংসদ সদস্য আলহাজ নজরুল ইসলাম চৌধুরী এমপি, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।



ফেইসবুকে আমরা