বাংলাদেশ, , বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০

নগরীতে শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তা কর্তৃক একটি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের হুমকি ও লাঞ্ছনার প্রতিবাদে কাস্টম বন্ড অ্যান্ড কর্মাশিয়াল ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন

  প্রকাশ : ২০২০-০৭-১৬ ১৫:৫০:৩০  

পরিস্হিতি২৪ডটকম : নগরীর দক্ষিণ মধ্যম হালিশহর এলাকার ইহসান এন্টারপ্রাইজ নামে একটি গার্মেন্টস এক্সেসরিজের প্রতিষ্ঠানে শুল্ক গোয়েন্দা ও বন্ড কর্মকর্তাগণ আকস্মিক পরিদর্শনে গিয়ে ঐ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাকে হুমকি-ধমকি ও লাঞ্ছনা করার প্রতিবাদে শুল্ক গোয়েন্দা ও বন্ড কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কাস্টম বন্ড অ্যান্ড কর্মাশিয়াল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন গতকাল ১৫ জুলাই ২০২০ বুধবার নগরীর দামপাড়াস্থ ওয়াসার মোড় বন্ড কমিশনার কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন ইহসান এন্টারপ্রাইজের বাণিজ্যিক ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ কিবরিয়া। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, ইহসান এন্টারপ্রাইজ একটি শতভাগ রপ্তানিমুখী বন্ড প্রতিষ্ঠান। বন্ড সুবিধার আওতায় বিনা শুল্কে কাঁচামাল আমদানির পর এক্সেসরিজ তৈরি করে তারা বিদেশে রপ্তানি করে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের নিয়মানুযায়ী আমদানি করা কাঁচামাল মজুদ ও রপ্তানি তথ্য জানতে নিয়মিত বন্ড প্রতিষ্ঠানগুলো পরিদর্শন করেন বন্ড কমিশনারেট কার্যালয়ের কর্মকর্তারা। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকলে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা যাওয়ার নিয়ম আছে। কিন্তু এই নিয়ম উপেক্ষা করে আকস্মিকভাবে কর্মকর্তাকে রাতে বাসা থেকে ডেকে এনে ইহসান এন্টারপ্রাইজের কারখানায় পরিদর্শনে যান শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম কার্যালয়ে কর্মকর্তা ও বন্ড কমিশনারেট অফিসের কর্মকর্তাসহ প্রায় ২৫ জনের একটি টিম। তারা কারখানায় ঢুকে পরিদর্শনের একপর্যায়ে ব্যবস্থাপকের মোবাইল ফোন কেড়ে নেন এবং শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন ও হুমকি-ধমকি দিয়ে বিভিন্ন কাগজে স্বাক্ষর নেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে আরো বলেন, এনবিআর এর বিধান অনুযায়ী বন্ড কারখানা পরিদর্শনে যাওয়ার আগে কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে হয়। কিন্তু সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ ছাড়া আমাদের অবহিত না করে তারা পরিদর্শনে এসে অভিযান চালায়, যা খুব নিন্দনীয় এবং ঐ সময়ে তারা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। প্রজাতন্ত্রের একজন কর্মকর্তা ক্ষমতার অপব্যবহার করে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে কিছু মহলকে খুশি করার উদ্দেশ্যে যে অন্যায় আচরণ করেছেন তার বিরুদ্ধে কঠোর প্রতিবাদ জানান তিনি এবং এই বিষয়ে বন্দর থানায় ইহসান এন্টারপ্রাইজের পক্ষ থেকে একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করা হয়। মানববন্ধনে উপস্থিত থেকে একাত্মতা প্রকাশ করেন বিভিন্ন বন্ডেড প্রতিষ্ঠানের কমার্শিয়াল অফিসারবৃন্দসহ অ্যাসোসিশনের নেতৃবৃন্দ। উক্ত মানববন্ধন থেকে অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যকে নির্যাতন, হুমকি ও মিথ্যা স্বীকারোক্তি আদায়ের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি দাবি করা হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি



ফেইসবুকে আমরা