বাংলাদেশ, , বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০

একজন রেজাউল করিম তালুকদার!

  প্রকাশ : ২০২০-০৬-০৮ ১৩:৫৮:২৮  

পরিস্হিতি২৪ডটকম : একজন মাওলানা রেজাউল করিম তালুকদারের পথ চলা ও মানবিকতার নমুনা।সহজ সরল একজন মানুষ তিনি। তাঁর সাথে আমার পথচলা ২যুগেরও বেশি। আপন মানুষ, প্রিয়জন। আসলে তাঁকে অনেকে বুকা মানুষও বলেন। স্বার্থের উর্ধে রেজা ভাইয়ে পথ চলা। কিছু করতে না পারলেও শহরে বাড়ী করতে পারতো! করেনি। আধুনিক যুগের চট্টগ্রামে প্রথম কম্পিউটার ব্যবসায়ী রেজা ভাই।ভালো প্রিন্টিং ও মুদ্রন জগতে শক্তি মান মানুষ। চট্টগ্রামের ষোল শহর জামেয়া আহমদিয়া সুন্নীয়া আলিয়া এক সময়ের মেধাবী ছাত্র। ইসলামী চিন্তাচেতনা ও সুফিবাদ চর্চায় নিবেদিত মানবিক মানুষ। আমি যে দিন থেকে ই দেখেছি, সেদিন থেকেই রেজা ভাইকে মানবিক মানুষ হিসেবে দেখেছি। অর্থের ফিছনে কখনো ঘুরেননি তিনি। মানুষের পাশে থাকতে দেখেছি। অসহায় মানুষের পাশে রাতে কিংবা দিনে সর্ব সময়ে পাওয়া যাবে। সুন্নী আকিদার বিশ্বাসী রাজনৈতিক সংগঠক তিনি। তরুন বয়সে চন্দনাইশ সাতকানিয়া আংশিক নির্বাচনী এলাকায় জাতীয় সংসদে নির্বাচনে ইসলামী ফ্রন্টের মনোনীত প্রার্থী হয়ে ভোট যুদ্ধে অংশ নেন। এই ভোটে তিনি কর্নেল ( অবঃ) অলি আহমদ বির বিক্রমের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ( কর্নেল ( অবঃ) অলি আহমদ বির বিক্রম এমপি ভোটের পরে যোগাযোগ মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সেই সময়ে তিনি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ছিলেন। পরে তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও সামরিক বাহিনীর উপর উচ্চতরে পড়াশুনা করে যুক্ত রাষ্টের ভার্জেনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন। বর্তমানে তিনি এলডিপি নামে একটি রাজনীতিক দল গঠন করেন। সেটি সভাপতি ড. কর্নেল (অবঃ) অলি আহমদ বির বিক্রম নিজেই)।
মানবতাবাদী অসাম্প্রদায়িক চেতনার মানুষ রেজাউল করিম তালুকদার।
জাতীয় দরগাহমাজার সংস্কার-সংরক্ষণ কমিটির তিনি চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছে। বাংলাদেশের একসময়ের প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি আব্দুর রউফ চেয়ারম্যান এবং রেজাউল করিম তালুকদার কার্যকরী কমিটির চেয়ারম্যান, সোহেল মোঃ ফখরুদ্দিন মহাসচিব করে বাংলাদেশ শিশু উন্নয়ন মানবাধিকার ফোরাম গঠিত হলে এই কমিটির মাধ্যমে সমগ্র বাংলাদেশে আমরা কাজ করি। একই সাথে বাংলাদেশের মানবতার সুন্নিয়তের আদর্শ পত্র-পত্রিকার মাধ্যমে মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে রেজাউল করিম তালুকদার প্রতিষ্ঠা করেন মাসিক সুন্নী জগত পত্রিকা। এই পত্রিকায় তিনি আমাকে যুগ্ম -সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করার সুযোগ দিয়েছেন । চট্টগ্রামের অপর নাম ইসলামাবাদ। ইসলামাবাদের স্মৃতিকে ধরে রাখার জন্য রেজাউল করিম তালুকদার ও আমি যৌথভাবে ইসলামাবাদ নামে সাহিত্য পত্রিকা প্রকাশ করি। তিনি ওই পত্রিকার প্রধান সম্পাদক, আমি সোহেল ফখরুদ-দীন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছি। পত্রিকাটি মাঝে মাঝে প্রকাশিত হয় অনিয়মিত ভাবে। রেজাউল করিম তালুকদার রাজনীতি, সমাজকর্মী, চিন্তাবিদ, ব্যবসায়ী ও সফল চিন্তা-চেতনার একজন আদর্শবান ইসলামী চিন্তাবিদ ও আশেকে রাসুল (সাঃ)।কোরআন শরীফ ও হাদীস শরীফ চর্চায় নিবেদিত প্রাণ। মানুষের কল্যাণে দাঁড়ানো তার পবিত্র দায়িত্ব বলে তিনি মনে করেন তিনি।পৃথিবীর দুর্দিনে করোনার মহামারীতে অসহায় শিশুদের জন্য চট্টগ্রাম ইতিহাস চর্চা কেন্দ্রের পক্ষ থেকে আমরা মানবিক কর্মসূচি নামের একটি খাবার বিতরণ কর্মসূচির আয়োজন করেছি। এই কর্মসূচিতে ৪৮ দিন যাবত নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন পথে পথে মানুষকে খাবার বিতরণে একমাত্র আমার সাথে সঙ্গী ছিলেন রেজাউল করিম তালুকদার। কোনদিন না বলেননি পৃথিবীর থেমে থাকা এই কাজে যোগদান করতে।
আজ স্বার্থপরের মত আপনাদের কাছে, জাতির কাছে, যাঁরা আমাদের চিনেন, তাঁদের কাছে দোয়া কামনা করছি প্রিয় রেজা ভাইয়ের জন্য।
এই মানবিক মানুষটি বেঁচে থাকলে, অনেক মানুষ, অনেক মানবকল্যাণে, দেশের কল্যাণ, সমাজের কল্যাণ, মানুষের কল্যাণ হবে।
আবারও বলছি স্বার্থপরের মত নিজেদের মানুষের জন্য দোয়া আশির্বাদ কামনা করছি। সুস্থ ও সুন্দর এবং নিরাপদে রাখুন আল্লাহ আপনাকে। আপনার পরিবার পরিজন সুখে থাকুক।
লেখকঃ সোহেল মো.ফখরুদ-দীন।



ফেইসবুকে আমরা